ঘোড়াশালে বাংলাদেশ জুট মিলের শ্রমিকদের পাওনাদী দেয়া শুরু করেছে বিজেএমসি

ঘোড়াশালে বাংলাদেশ জুট মিলের শ্রমিকদের পাওনাদী  দেয়া শুরু করেছে বিজেএমসি

মো: তারেক পাঠান, পলাশ (নরসিংদী) থেকে

বন্ধ হয়ে যাওয়া বাংলাদেশ পাটকল কর্পোরেশন (বিজেএমসি) নিয়ন্ত্রণাধীন নরসিংদীর পলাশ উপজেলার ঘোড়াশালে অবস্থিত বাংলাদেশ জুট মিলের শ্রমিকদের সকল পাওনাদী বুধবার দুপুর থেকে পরিশোধ করা শুরু করেছে বিজেএমসি। বিষয়টি নিশ্চিত করে মিলের প্রকল্প প্রধান ইঞ্জিনিয়ার মতিউর রহমান মন্ডল জানান,বিজেএমসি কর্তৃপক্ষের নির্দেশে বুধবার থেকে শ্রমিকদের সকল পাওনাদী পরিশোধ করা শুরু করা হয়েছে। বুধবার প্রথম পর্যায়ে ১২০ জন শ্রমিককে তাদের সকল পাওনাদী পরিশোধ করা হয়েছে। এটা ধারাবাহিক ভাবে প্রতিদিন ১০০ থেকে ১৫০ জন শ্রমিককে সকল পাওনাদী বিভাগ বিভাগ ভাগ করে পরিশোধ করা হবে।

তিনি আরও জানান.বাংলাদেশ জুট মিলের ১৯০৫ জন শ্রমিকদের সমোদয় পাওনাদীর টাকা পরিশোধ করা হবে। এ সকল শ্রমিকের পাওনা মোট ২৩৪ কোটি টাকা ।

মজুরি কমিশন ২০১৫ অনুযায়ী শ্রমিকদের সকল পাওনাদী তাদের ব্যাংক হিসেবে জমা দেয়া হয়েছে। পি.এফ.গ্র্যাইচুটি ও গোল্ডেন হ্যান্ডশেক সুবিধাসহ সকল পাওনার ৫০ শতাংশ স্ব স্ব ব্যাংক হিসেবে এবং বাকী ৫০ শতাংশ স্ব স্ব নামে সঞ্চয়পত্র আকারে পরিশোধ করা হচ্ছে। উল্লেখ্য, সরকারী নির্দেশনা অনুযায়ী গত ২ জুলাই রাত ১০ টায় মিল কর্তৃপক্ষ মিলের উৎপাদন বন্ধ করে বিজেএমসির নোটিশ মিলের প্রধান গেইটে টাঙ্গিয়ে দিয়ে মিলের উৎপাদন বন্ধ করে দেয়। ১৯৬২ সালে প্রতিষ্ঠিত ঘোড়াশালের বিজেএমসির নিয়ন্ত্রাধীন বাংলাদেশ জুট মিলটিতে স্থায়ী-অস্থায়ী মিলিয়ে তিন হাজার শ্রমিক-কর্মচারী কর্মরত ছিলো।

About admin

Avatar of admin

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *